চরিত্র মানুষের অমূল্য সম্পদ

1
49
যে নদী হারায়ে স্রোত চলিতে না পারে সহস্র শৈবালদাম বাঁধে আসি তারে; যে জাতি জীবনহারা অচল অসাড় পদে পদে বাঁধে তারে জীর্ণ লোকাচার ।
যে নদী হারায়ে স্রোত চলিতে না পারে সহস্র শৈবালদাম বাঁধে আসি তারে; যে জাতি জীবনহারা অচল অসাড় পদে পদে বাঁধে তারে জীর্ণ লোকাচার ।
Advertisements
Rate this post

চরিত্র মানুষের অমূল্য সম্পদ

মূলভাব: চরিত্র মানুষের কাছে সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ। এটি ঠিক থাকলে একজন মানুষ জীবনে কোথাও কোনাে কাজে আটকে না। সকল বাধাবিপত্তি ডিঙিয়ে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে চলে জীবনযুদ্ধে।

সম্প্রসারিত ভাব: ইংরেজিতে একটি কথা আছে ‘The crown and glory of life is character‘. চরিত্র মানবের মহার্ঘতম বস্তু, শ্রেষ্ঠতম অলংকার । হাদিসে আছে, “সবচাইতে পূর্ণ ঈমানদার সেই ব্যক্তি যার আখলাক অর্থাৎ চরিত্র সবচেয়ে ভালো।” চরিত্র সম্পদ অন্য সকল সম্পদ অপেক্ষা অধিক মূল্যবান। চরিত্র গৌরবে বলীয়ান মানুষ দেবতার মহিমায় পৃথিবীতে বিরাজ করে। চরিত্র মানুষকে ন্যায়, সত্য, সংযম ও শ্রদ্ধাবোধ শিক্ষা দেয় এবং সৎপথে চলতে উদ্বুদ্ধ করে।

চরিত্রবান ব্যক্তি সমাজের শিখাস্বরূপ। সে অর্থসম্পদে দীন হলেও গৌরবে মহান। কথায় আছে, “রাজার জোর অর্থে আর চরিত্রবান ব্যক্তির জোর হৃদয়ের। হৃদয়িক মহিমায় উজ্জ্বল চরিত্রবান ব্যক্তি সদালাপী, বিনয়ী ও জ্ঞানের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হন। চরিত্রবান ব্যক্তি মহাপুরুষরূপে সমাজে সমাদৃত। পক্ষান্তরে, চরিত্রহীন ব্যক্তি পশুর সদৃশ। সে গন্ধহীন পুষ্পের মতো। তাই কেউ তাকে সম্মান করে না। কথায় আছে- টাকা কড়ি হারালে কিছুই হারায় না, স্বাস্থ্য হারালে কিছু হারায়; কিন্তু চরিত্র হারালে সব কিছুই হারাতে হয়। সুতরাং সমৃদ্ধিময় জীবনের জন্য চরিত্র প্রধান নিয়ামক হিসেবে কাজ করে। চরিত্রের মাধ্যমেই ঘোষিত হয় জীবনের গৌরব। মানুষের প্রকৃত পরিচয় তার চরিত্রে। চরিত্রবলেই মানুষ সুন্দর ও সার্থক হয়ে ওঠে।

Advertisements

মন্তব্য:
চরিত্রবান ব্যক্তি মানেই সকল মানুষের আদর্শ। তাই আমাদের উচিত শৈশব থেকে চরিত্রবান হওয়ার সাধনা করা। কারন চরিত্র মানুষের অমূল্য সম্পদ।

চরিত্র মানুষের অমূল্য সম্পদ

আরও পড়ুন……

Leave a Reply